• Homeopathybd-add-Leaderboar

চুলচেরা যত্ন

ad 600x70

চুলের নানা রকম সমস্যা রয়েছে। লিভারের সমস্যা, দুশ্চিন্তা, আয়রন ও ক্যালরির অভাব, মাত্রাতিরিক্ত ওষুধ সেবন, টিউবার কিউলোসিস, টাইফয়েড, নিউমোনিয়া, ডায়াবেটিস, হরমোনজনিত সমস্যা বা অত্যধিক ওরাল কন্ট্রাসেপটিভের ব্যবহার চুলের সমস্যার অন্যতম কারণ। চুল নিয়ে বিভিন্ন সমস্যার সমাধান দিয়েছেন ফারজানা শাকিলস বিউটি স্যালুনের প্রধান ও রূপবিশেষজ্ঞ ফারজানা শাকিল

চুলের রুক্ষতা
বিভিন্ন কারণে চুল রুক্ষ হয়ে যায়। চুলের রুক্ষতা দূর করতে সপ্তাহে তিন দিন চুলে তেল লাগিয়ে এই প্যাকটি ব্যবহার করুন_এক চামচ নারিকেল তেল, এক চামচ ক্যাস্টর অয়েল, এক চামচ ভিনেগার, এক চামচ শ্যাম্পু, একটা পাকা কলা ও এক চামচ মধু মিশিয়ে প্যাক বানিয়ে চুলে লাগিয়ে রাখুন ৪০ মিনিট। এরপর পানি দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।
চুল ঝরে পড়া
বর্ষায় অনেকের বেশি চুল পড়ে। এরকম হলে সপ্তাহে দুই থেকে তিন দিন নারিকেলের দুধ, পাতিলেবুর রস ও নিমপাতা বাটা মিশিয়ে প্যাক বানিয়ে চুলে লাগিয়ে রাখুন। এক ঘণ্টা পর শ্যাম্পু করে ফেলুন। শেষে দুধ ও মধুর মিশ্রণ দিয়ে চুল ধুয়ে নিন।
খুশকির সমস্যা
খুশকির সমস্যা চুল পড়ার বড় কারণ। আর বর্ষার সময় খুশকির প্রকোপ অনেক বেড়ে যায়। এ সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে সপ্তাহে দুদিন এই প্যাকটি লাগান। টকদই, একটি ডিসপিরিন ট্যাবলেট ও পাতিলেবুর রস একসঙ্গে মিশিয়ে পুরো স্কাল্পে লাগিয়ে রাখুন। দুই ঘণ্টা পর শ্যাম্পু করে ফেলুন। শেষে চায়ের লিকারে পাতিলেবুর রস মিশিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।
অনুজ্জ্বল চুল
সাধারণত চুল অনুজ্জ্বল হয় তখনই যখন কোনো শারীরিক সমস্যা থাকে। অতিরিক্ত ড্রায়ার, আয়রন বা চুলের রং ব্যবহার করা হলেও চুল অনুজ্জ্বল হয়ে যায়। আবার অ্যানিমিয়া থাকলে চুর অনুজ্জ্বল হয়। খাদ্যতালিকায় প্রোটিন, ক্যালসিয়াম ও ভিটামিন-জাতীয় খাবার রাখবেন। প্রতিদিন শ্যাম্পু করবেন ও কন্ডিশনার লাগাবেন।
সপ্তাহে এক দিন শ্যাম্পু করার আগে গরম নারিকেল তেল ও ক্যাস্টর অয়েল ৩:১ অনুপাতে মিশিয়ে চুলে লাগান। গরম পানিতে তোয়ালে ভিজিয়ে পুরো মাথায় জড়িয়ে রাখুন।
অথবা এক চা চামচ ক্যাস্টর অয়েল, এক চা চামচ মধু, একটা পাকা কলা, এক চা চামচ নারিকেল তেল, এক চা চামচ ভিনেগার বা লেবুর রস ও এক চা চামচ শ্যাম্পু মিশিয়ে মাথায় আধঘণ্টা লাগিয়ে রেখে শেষে শ্যাম্পু করে নেবেন। শেষে এক চা চামচ নারিকেলের দুধের সঙ্গে এক চা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।
চুলের ডগা ফাটা
চুলের ডগা ফাটলে বুঝবেন চুল শুষ্ক হয়ে পড়েছে। চুলের ডগা ফেটে গেলে তা কাটা ছাড়া কোনো উপায় নেই। এ ছাড়া চুলে নিয়ম করে যত্ন নিতে হবে। ২০০ গ্রাম নারিকেল তেলের সঙ্গে ২০টি জবাফুল, দুটি আমলকী, দুই চামচ মেথি ১০ মিনিট ফোটান। সপ্তাহে দুই থেকে তিন দিন এই মিশ্রণ চুলে লাগাবেন।
অ্যালার্জিজনিত সমস্যা
বর্ষার সময় একরকম ভাপসা গরম হয়। চুল ঘামে ভিজে অনেকের অ্যালার্জি দেখা দেয় । অ্যালার্জি হলে স্কাল্প চুলকায়। চুল শুকনো রাখার চেষ্টা করুন। রাতে চুলের গোড়ায় অ্যান্টি ইচিং ক্রিম লাগিয়ে সকালে শ্যাম্পু করে নিন ।
অন্যান্য
এ ছাড়া ক্ষার সমৃদ্ধ শ্যাম্পুর ব্যবহার, বেশিক্ষণ এয়ারকন্ডিশনে থাকলে স্কাল্প শুষ্ক হয়ে যায়। রোজমেরি অ্যাসেনশিয়াল অয়েল ও অলিভ অয়েল মেশানো কন্ডিশনার ভেজা চুলে লাগান। হালকা কুসুম গরম পানিতে তোয়ালে ভিজিয়ে মাথায় জড়িয়ে রাখুন ৪৫ মিনিট। তারপর মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিন ।

টিপস

* চুল নিয়মিত ট্রিম করুন। স্পিলিটেড অ্যান্ডসগুলো ছেটে নিন।
* হেয়ার ব্রাশ পরিষ্কার রাখুন। অন্যের হেয়ার ব্রাশ ব্যবহার করবেন না।
* বেশি চা-কফি খাবেন না। কারণ বেশি চা-কফি খেলে নার্ভ উত্তেজিত হয় এবং শরীর থেকে প্রয়োজনীয় পানি ও গুরুত্বপূর্ণ উপাদান বেরিয়ে যায়। দিনে ৮ থেকে ১০ গ্লাস পানি খান।
* মোটা দাঁতের চিরুনি দিয়ে চুল আঁচড়াবেন। এতে চুলের তেলগ্রন্থি থেকে তেল বের হয়ে নিস্তেজ চুলকে সজীব করে তুলবে।

 [ ভাল লাগলে পোস্ট এ  অবশ্যই লাইক দিবেন , লাইক দিলে আমাদের কোনো লাভ অথবা আমরা কোনো টাকা পয়সা পাই না, কিন্তু উৎসাহ পাই, তাই অবশ্যই লাইক দিবেন । ]


Leave a comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।


*


 
homeopathy.com.bd
online partners namaj.info bd news update 24 Add

Read previous post:
চুলের সমস্যা ও তার সমাধান

প্রতিদিন বাইরে বেরোলেই রোদে পুড়ে আর ধূলোবালি লেগে আপনার চুল হয়ে যায় রুক্ষ। তাছাড়া বাতাসে আর্দ্রতার অভাবেও চুলের চকচকে ভাব...

Close